রাম মন্দির ইস্যুতে হিন্দুত্ববাদীদের বিরুদ্ধে একজোট হলো আমেরিকার একাধিক সংগঠন

0
14

১৯৯২ সালে ভারতের অযোধ্যায় হিন্দু সন্ত্রাসীদের হাতে শহীদ হয় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ। মসজিদটির জমিতে পূর্বে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের রাম মন্দির থাকার দাবির দীর্ঘ চেষ্টা চালানোর পর ভারতের শীর্ষ আদালত রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে রায় দেয়। যদিও মসজিদের জমিতে রাম মন্দির থাকার ঐতিহাসিক দলিল পায়নি আদালত।

ওই রায়কে কেন্দ্র করে রাম মন্দির নির্মাণে ওঠেপরে নেমেছে হিন্দু ট্রাস্ট বোর্ড। ভারত দখলকৃত কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বাতিলের গত বছরের দিনটিকে কেন্দ্র করে আগামী ৫ আগস্ট শহীদ বাবরি মসজিদের জমিতে রাম মন্দির নির্মাণ করবে ওই বোর্ড। এতে উপস্থিত থাকবে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এসময় ভূমিপুজা করবে হিন্দুত্ববাদীরা।

পাশাপাশি প্রবাসী ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো ওই দিনে আমেরিকার নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কোয়্যারের বিলবোর্ডে রাম ও মন্দিরের থ্রি ডি ছবি ভাসানোর উদ্যোগ নেয়। তবে হিন্দুত্ববাদীদের এই উদ্যোগের বিরুদ্ধে এবার একজোট হয়েছে আমেরিকার একাধিক সংগঠন। অন্তত ২০টি সংগঠন ও বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি হিন্দুত্ববাদীদের বিরুদ্ধে নিউ ইয়র্কের মেয়রকে চিঠি লিখেছেন বলে জানা গেছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, এই ইসলামবিদ্বেষী বিলবোর্ড প্রদর্শন ভারতীয় মুসলিমদের মানবাধিকারে আঘাত। নিউ ইয়র্কের মতো সর্বধর্ম সমন্বয়ের শহরে কীভাবে এমন ঘৃণা ও ইসলামবিদ্বেষী প্রদর্শন ও সেলিব্রেশনকে অনুমতি দেয়া হচ্ছে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে মেয়রের কাছে।

কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি চিঠিতে লিখেছেন, “বিজেপির উগ্র হিন্দুত্ববাদ ও জাতীয়তাবাদের বিরুদ্ধে আমরা একজোট। এই দল ভারতে মুসলিমবিদ্বেষ ছড়ায়। সর্বধর্ম সমন্বয়কে মানে না। তাদের মন রাখার জন্য নিউ ইয়র্ক শহরে কীভাবে এই কর্মকাণ্ডকে অনুমতি দেয়া হচ্ছে?”

তারা আরো লিখেছেন, “৪২৫ বছরের পুরনো বাবরি মসজিদ ভেঙে আর ৩০০০ মানুষের মৃত্যুর বিনিময়ে পাওয়া এই রাম মন্দিরের ভূমিপূজার অনুষ্ঠান সম্প্রচার ইসলামবিদ্বেষী। ওইদিন রাম ও মন্দিরের ছবি প্রদর্শন বন্ধে নির্দেশ দিতে হবে।”

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে