মোস্তাফিজ শুধু অনুশীলন করবে

0
22


মোস্তাফিজ শুধু অনুশীলন করবে


বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজ অনেক দিন ধরে ছন্দ খুঁজে পাচ্ছেন না। ছন্দ হারানোর কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছিল তাকে। এ বোলারের মূল শক্তি লাইন, লেংথ ও নিয়ন্ত্রণ। সঙ্গে দুই ধরনের কাটার মোস্তাফিজকে বাকি বাঁহাতি পেসারদের থেকে আলাদা করে। কিন্তু কাটার আর লেংথ বলগুলো ডান হাতি ব্যাটসম্যানদের থেকে বেরিয়ে যায়। ব্যাটসম্যানরা লেংথ পড়তে পারলেই হলো, সহজেই মোস্তাফিজের বোলিংয়ে ঝুঁকিহীন ব্যাটিং করা যায়। লেংথ থেকে বল অন্তত ১০ শতাংশ ভেতরে আনলেই মোস্তাফিজ হয়ে উঠতেন আরো ভয়ঙ্কর। কিন্তু কি কারণে কাটার মাস্টার ছন্দ খুঁজে পাচ্ছেন না তা নিয়ে ভাবনার শেষ নেই টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর।

শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সংবাদ সম্মেলনে এ প্রোটিয়া কোচ জানান, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে একাদশে থাকছেন না মোস্তাফিজ। বরং নতুন বোলিং কোচের সঙ্গে টেকনিক্যাল বিষয় শেখার জন্য রাখা হয়েছে স্কোয়াডে। আর মোস্তাফিজকে দলে নেয়ার বিষয়ে যে একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে সবার, সেটিও স্মরণ করিয়ে দেন ডমিঙ্গো। তিনি জানান, আমি জানি মোস্তাফিজের বিষয়টিকে ঘিরে কিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে সবার।

ডমিঙ্গো আরো বলেন, আমি মনে করি না মোস্তাফিজ টেস্ট খেলার জন্য প্রস্তুত আছে। এখনো কিছু টেকনিক্যাল কাজ করতে হবে তার। যাতে করে ডান হাতি ব্যাটসম্যানের জন্য ভেতরের দিকে বল ঢোকাতে পারে সে। স্কোয়াডে সুযোগ পাওয়াটা আসলে এই প্রক্রিয়ারই একটা অংশ। যাতে করে আমাদের নতুন বোলিং কোচের সঙ্গে সে কাজ করতে পারে।

যদি টেস্টে না-ই রাখা হয় তাহলে স্কোয়াডে ডাকা হলো কেন। যেখানে মোস্তাফিজ ছাড়াও রয়েছেন আরো চার পেসার! এই প্রশ্নেরও অবসান ঘটিয়েছেন ডমিঙ্গো। মূলত আগামী পাঁচদিন যেন বোলিং কোচের সঙ্গে নিবিড়ে কাজ করতে পারেন, এ কারণেই নেয়া হয়েছে মোস্তাফিজকে। আর তা করতে পারলে সাদা পোশাকের ক্রিকেটেও লাভবান হবে সে।

রাসেল আরো বলেন, আমার মতে তাকে খেলানোর জন্য স্কোয়াডে ডাকা হয়নি। তাকে নেয়ার মূল উদ্দেশ্য অনুশীলন করানো এবং নিজের সেরা ছন্দে ফিরিয়ে আনা। এ মুহূর্তে তাকে টেস্টে খেলার মতো দেখছি না আমি। এটা তাকেও বলেছি আমি এবং পরামর্শ দিয়েছি যেন টেকনিক্যাল বিষয় নিয়ে কাজ করে।

টেস্ট দল ঘোষণার পর থেকেই মোস্তাফিজকে নিয়ে একটা ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। গতকাল সেটি দূর করলেন ডমিঙ্গো। দলের নতুন বোলিং কোচ ওটিস গিবসন মোস্তাফিজকে নিয়ে কাজ করবেন। আপাতত তার কাজ এটিই। জাতীয় দলের সুযোগ-সুবিধা ব্যবহার করে মোস্তাফিজ যেন তার শেখার কাজটা ভালোমতো এগিয়ে নিতে পারেন, সে জন্যই এ ব্যবস্থা।

এসআর



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে