যুবাদের ইতিহাসের হাতছানি

0
39


যুবাদের ইতিহাসের হাতছানি


দক্ষিণ আফ্রিকার চলমান যুব বিশ্বকাপ আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারাতে মরিয়া বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সেলক্ষ্যে ওই ম্যাচের আগে বেশ মনোযোগ দিয়েই অনুশীলন করেছে আকবর বাহিনী। পচেফস্ট্রমের সেনউইস ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়। বেসরকারি চ্যানেল গাজী টিভিতে আকবর-হৃদয়দের খেলা সরাসরি উপভোগ করা যাবে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সর্বোচ্চ অর্জন সেমিফাইনাল খেলা। ঘরের মাঠে ওই সিঁড়িতে পা রেখেছিল টাইগার যুবারা। এবার আরেকটি সেমির দেখা পেল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। তাতে অতীত রেকর্ড ছাপিয়ে যাওয়ার সুযোগও থাকছে নাভিদ নেওয়াজের শিষ্যদের। ২০১৬ সালের আসরে নিজেদের মাঠে প্রথম ও শেষবার টুর্নামেন্টের সেমিতে উঠেছিল তারা। সেমিফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৩ উইকেটে হেরে আসর থেকে বিদায় নিতে হয় সেবার। তবে এবার ফাইনালের পথ খুব পরিষ্কার। তিন মাস আগে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে তাদের ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ হারায় যুব টাইগাররা। এবার বিশ^কাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে অবশ্য বাংলাদেশ হেরেছে, তারপরও বর্তমান পারফরমেন্স ফাইনাল খেলার স্বপ্ন দেখাচ্ছে। এর আগে ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে বৃষ্টি আইনে ৯ উইকেটে, দ্বিতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে ৭ উইকেট হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। তবে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টির কারণে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছে। ৩ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে ‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ।

অন্যদিকে দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠে নিউজিল্যান্ড। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বেনোনিতে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ^কাপে দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যুবাদের দেয়া ২৪০ রানের লক্ষ্যে নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে জয় তুলে নেয়। অপরদিকে শেষ চারে ওঠার লড়াইয়ে বাংলাদেশ ¯্রফে উড়িয়ে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকাকে। ১০৪ রানের বিশাল ব্যবধানে স্বাগতিকদের হারিয়ে সেমির টিকেট কাটে বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটাররা।

ওদিকে দুর্দান্ত পারফর্ম করা আকবররা টুর্নামেন্টে অপরাজিত থেকে সেমিফাইনালিস্ট। আর তাই তাদের সফলতার জন্য ভিডিও কলে ক্রিকেটপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলে অভিনন্দন জানিয়েছেন। নির্ভয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে বলেছেন। প্রত্যেকের সঙ্গে আলাদাভাবে পরিচিত হয়ে সাহস ও প্রেরণা জুগিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে আকবর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। আমরা আমাদের সেরাটা দিয়ে ম্যাচ জেতার চেষ্টা করব।’

অস্ট্রেলিয়াকে ৭৪ রানে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে ইতোমধ্যেই শেষ ৮ নিশ্চিত করেছে ভারত। এরপর সেমিতে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী পাকিস্তানকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপের ফাইনাল নিশ্চিত করে। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি এই মাঠেই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ^কাপ খেলতে বাংলাদেশের যুবারা গত ৩ জানুয়ারি দেশ ছাড়ে। বিশ^কাপ যাত্রার আগে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক আকবর আলি ফাইনালে খেলার আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন। আকবর বলেছিলেন, ‘আমাদের দলটা ফাইনালেও যেতে পারে বলে বিশ্বাস করি। সাম্প্রতিক সময়ে আমরা খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছি। এই কারণেই হয়তো প্রত্যাশা বেড়ে গেছে। আমরা এখনই ফলাফলের দিকে তাকাচ্ছি না, আবার বহু দূরেও তাকাচ্ছি না তাতে হয়তো বাড়তি চাপ তৈরি হবে। প্রধান লক্ষ্য নকআউট পর্বে যাওয়া এবং ম্যাচ ধরে ধরে এগোনো।’ আকবর নিজেও আস্থা রাখছেন দলের সামর্থ্যরে ওপর। এখন ক্রিকেটভক্তসহ সমগ্র দেশবাসী তাকিয়ে আছে আজকের ম্যাচের দিকে।

এমএইচ



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে