এবার ৫ হাজার অসহায় মানুষের পাশে টেন্ডুলকার

0
62


এবার ৫ হাজার অসহায় মানুষের পাশে টেন্ডুলকার

করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে স্থবির হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। এ অবস্থায় সংক্রামণ রোধে গোটা ভারত লকডাউন ঘোষণা করেছেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু সব কিছু বন্ধ হবার কারণে খেটে খাওয়া মানুষেরা বেশ বিপদে পড়েছেন। তাই কদিন আগে করোনায় দুর্গতদের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ত্রান তহবিলে ৫০ লাখ রুপি প্রদান করেছিলেন সাবেক ক্রিকেটার শচিন টেন্ডুলকার।

এবার ৫ হাজার অসহায় মানুষের খাবারের দায়িত্বও নিলেন লিটল মাস্টার। এই ৫ হাজার দরিদ্র মানুষকে এক মাসের খাবার সরবরাহ করবেন তিনি। আর এই কাজ শচিন করছেন ভারতের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আপনালয়’ এর মাধ্যমে।

এ ছাড়া শচিনের এমন মহানুভবতার কথা তিনি নিজে কাউকে জানাননি। বরং এ বিষয়টি জানিয়েছে যে সংস্থার মাধ্যমে তিনি খাবার সরবরাহ করবেন তারা।

আপনালয় টুইটারে জানিয়েছে, শচিন টেন্ডুলকারকে অনেক ধন্যবাদ। এই লকডাউনের সময় যেসব দরিদ্র মানুষেরা সবচেয়ে বেশি কষ্টে আছে তাদের সহায়তা করার জন্য। আপনালয়ের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। এই দুঃসময়ে শচিন প্রায় ৫ হাজার মানুষের এক মাসের খাবারের দায়িত্ব নিয়েছেন শচিন।

করোনাক্রান্তিতে দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়ানোয় আপনালয় সংস্থাটিকেও প্রশংসায় ভাসিয়েছেন শচিন। সংস্থাটির টুইটের উত্তরে তিন লিখেছেন, সাধারণ দরিদ্র ও দুঃখী মানুষকে সেবা দেয়ার কাজ অব্যাহত রাখার জন্য আপনালয়কে অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানাই। তোমরা তোমাদের ভালো কাজ চালিয়ে যাও।

করোনা ভাইরাসের কারণে অসহায় মানুষদের সাহায্যের জন্য ভারতের ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে কেউ অর্থ দিচ্ছেন, কেউ আবার নিজেই উদ্যোগ নিচ্ছেন খাবারের। শচিনের মতোই করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এসেছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি। আর্থিক সাহায্যের পাশাপাশি দুস্থ পরিবারের কাছে চালও পৌঁছে দিচ্ছেন তিনি। গরিব-অসহায় মানুষদের খাবার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন হরভজন সিংও। বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিং, সুনিল গাভাস্কাররা আবার আর্থিকভাবে দাঁড়িয়েছেন সরকারের পাশে।

এমএইচ



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে