কোয়ারেন্টাইন শেষে ফলাফল নেগেটিভ প্রোটিয়াদের

0
21


কোয়ারেন্টাইন শেষে ফলাফল নেগেটিভ প্রোটিয়াদের

ভারত থেকে ফেরার সময় অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল

করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই গত ১৮ মার্চ ভারত থেকে দেশে ফেরা দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট দলের সেলফ কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে। ১৪ দিনের সেলফ কোয়ারেন্টাইন শেষে সুখবর পেল প্রোটিয়ারা। সকলেরই করোনা উপসর্গ পরীক্ষা শেষে ফলাফল নেগেটিভ বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। কোনো উপসর্গ না থাকলেও ভারত থেকে করোনা আতঙ্কে ফেরার কারণে নানা পরীক্ষার মধ্য দিয়েই দেশে ফিরতে হয়েছিল তাদের। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসক দলের চিফ মেডিক্যাল অফিসার ড. শুয়েব মাঞ্জরা।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) তাদের ১৪ দিনের সেলফ কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে থাকতে হবে আগামী আরও দুই সপ্তাহ। গোটা দেশেই চলছে লকডাউন। মাঞ্জরা ইএসপিএনক্রিকইনফোকে জানিয়েছেন, ‘‘কোনো প্লেয়ারেরই উপসর্গ ছিল না। যাদের পরীক্ষা করা হয়েছিল তাদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।”

ভারতে তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজ খেলতে এসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ম্যাচ ছিল ধর্মশালায় ১২ মার্চ। তখনও করোনাভাইরাস এত ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেনি। কিন্তু সেই ম্যাচে একটিও বল খেলা সম্ভব হয়নি বৃষ্টির জন্য। এর পর দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওডিআই হওয়ার কথা ছিল ১৫ ও ১৮ মার্চ লখনৌ ও কলকাতায়। কিন্তু সেই ম্যাচ বাতিল করে দক্ষিণ আফ্রিকা দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেয়। বিসিসিআই না খেলারই সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ দিনের লকডাউন চলার মধ্যেই দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশে উড়ে যায় তাদের বিমান। তার পরই বন্ধ হয়ে যায় বিমান চলাচলও। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের লক্ষ্য অবশ্যই ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য। গৃহবন্দি থাকার সময় প্লেয়াররা নিজেদের কীভাবে ফিট রাখবেন সেই ব্যবস্থাও করে ফেলেছে বোর্ড। দলের ফিটনেস এবং ট্রেনার তুমি মাসেকেলা সবাইকে ট্রেনিং প্রোগ্রাম পাঠিয়ে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা এই সময় প্লেয়ারদের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। যাদের সামান্য চোট রয়েছে তাদের দেখার সময় পেয়েছি। ওরাও বিশ্রামের সুযোগ পেয়েছেন।” তিনি আরও বলেন, ‘‘দৌড়ানো যেটা অনেক বড় বিষয়, যা আগামী ২ সপ্তাহে তৈরি করার চেষ্টা করছি। তার মানে অনেক দৌড়, কার্ডিও ওয়ার্ক, সাইক্লিং আর সাঁতার।” আগামী জুন পর্যন্ত কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ নেই। তবে এই পরিস্থিতিতে ফিটনেস ধরে রাখা খুব কঠিন। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত ১৪০০ মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের।

এমআই



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে