বার্সা কি পারবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মুকুট জিততে

0
21


বার্সা কি পারবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মুকুট জিততে

চীনে সৃষ্ট প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে বাতিল হওয়ার উপক্রম হয়েছিল পুরো ইউরোপের ফুটবল মৌসুম। তবে উয়েফা সভাপতি আলেক্সান্ডার সেফেরিন অনেকটা একার জোরে ইউরোপের বিভিন্ন দেশের ফুটবল ফেডারেশনগুলোকে মৌসুম শেষ করার জন্য অপেক্ষা করান। তবে তাতেও ফ্রান্স ও বেলজিয়ামসহ বেশ কয়েকটি দেশ মৌসুম শেষ না করেই টেবিলের শীর্ষে থাকা দলকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে দেয়।

তবে বেশিরভাগ দেশ সেফেরিনের কথা মেনে অপেক্ষা করে। এর ফলে তারা মৌসুম শেষ করতে সমর্থ হয়। সেফেরিন ইউরোপের ঘরোয়া লিগগুলো শেষ করতে যেমন অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন তেমনই আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শেষ করার ক্ষেত্রেও অটুট ছিলেন। আর তার প্রচেষ্টাতেই এখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ প্রায় শেষের পথে চলে এসেছে। রাউন্ড ষোলোর খেলা ইতোমধ্যেই শেষ হয়ে গেছে।

এখন শুধু কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ম্যাচ বাকি রয়েছে। যদিও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এই মৌসুমের খেলা প্রায় শেষের পথে হাঁটছে, তবে আমরা সবসময় যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ দেখে এসেছি এবারের মৌসুমের বাকি খেলাগুলোতে তা দেখা যাবে না। করোনার কারণে এই মৌসুমের খেলায় বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনতে হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো খেলার ফরম্যাট। আগে কোয়ার্টার ফাইনাল ও সেমিফাইনাল দুই লেগে হলেও এই মৌসুমে তা হবে এক লেগের। মানে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে সেমিফাইনাল হবে বিশ্বকাপের আদলে নক আউট ম্যাচ। করোনার কারণে হোম ও অ্যাওয়ে ম্যাচের পদ্ধতি বাতিল হয়ে গেছে। এখন বিশ্বকাপের আদলে একটি নির্দিষ্ট মাঠে হবে বাকি খেলাগুলো।

এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল হওয়ার কথা ছিল তুরস্কের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে। এখন হোম অ্যাওয়ে পদ্ধতি ও ফাইনালের স্থান পরিবর্তন করে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ফাইনাল পর্যন্ত ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে পর্তুগালের লিসবন শহরের স্টেডিয়ামে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন এবং তিনবারের রার্নারআপ বার্সালোনার সামনে এবার ষষ্ঠ শিরোপা জয়ের হাতছানি। ১৪ আগস্ট বার্য়ান মিউনিখকে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করতে পারলে শিরোপা জয়ের পথে একধাপ এগিয়ে যাবে মেসিরা।

এখন আসা যাক কে জিতবে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা এ বিষয়টিতে। তবে তার আগে জেনে নেই কে কে এই মৌসুমে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে। রাউন্ড ষোলোর খেলা শেষে দেখা যাচ্ছে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ফ্রান্সের প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর, ইতালির আটলান্টা, জার্মানির আর বি লেইপজেইগ, স্পেনের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, স্পেনের বার্সেলোনা, জার্মানির বায়ার্ন মিউনিখ, ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার সিটি ও ফ্রান্সেরই আরেক ক্লাব লিঁও।

কোয়ার্টার ফাইনালের মধ্যে সবচেয়ে বিগ ম্যাচ হলো বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখের মধ্যে তৃতীয় ম্যাচটি। বলতে গেলে এটি হবে সেয়ানে সেয়ানে লড়াই। যদিও কোয়ার্টার ফাইনালে এই দুই দলের মধ্যে বায়ার্নকেই এগিয়ে রাখছেন বেশিরভাগ মানুষ। যদিও দুই দলই গ্রুপ পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। তবে রাউন্ড ষোলোতে বায়ার্ন চেলসির বিপক্ষে তাদের শক্তির পরীক্ষা দেখিয়েছে। দুই লেগ মিলিয়ে তারা চেলসির জালে ৭টি গোল প্রবেশ করিয়েছে। হজম করেছে মাত্র ১টি গোল। অপরদিকে বার্সা নাপোলির বিপক্ষে প্রথম লেগে ১-১ গোলে ড্র করার পর দ্বিতীয় লেগে ৩-১ গোলের জয় তুলে নিয়েছে। আর শেষ ম্যাচে ম্যানসিটি ও লিঁওর মধ্যে ম্যানসিটিই এগিয়ে থাকবে। কারণ তারা গ্রুপ পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। আর লিঁও হয়েছিল রানার্সআপ। রাউন্ড ষোলোতে ম্যানসিটি রিয়ালকে দুবারই ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে।

অপরদিকে লিঁও কোয়ার্টারে এসেছে ভাগ্যের জোরে। সবদিক মিলিয়ে এবার ক্লাবগুলোর শক্তির দিকে তাকালে দেখা যাচ্ছে শিরোপা জয়ের দিক দিয়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছে নেইমার-এমবাপ্পের ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর পিএসজি। এরপর দ্বিতীয় দল হিসেবে এগিয়ে থাকবে ম্যানচেস্টার সিটি। তবে বেশিরভাগ ফুটবল বোদ্ধার মতে এবার শিরোপা জয় করবে পিএসজি। তবে শেষ পর্যন্ত কে চ্যাম্পিয়ন হবে তা সময়ই বলে দেবে।

পিআর



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে