ইউরোপীয় ফুটবলে জমজমাট এক রাত

0
10


ইউরোপীয় ফুটবলে জমজমাট এক রাত

ইউরোপিয়ান ফুটবলে গতকাল ছিল বিগ ম্যাচের ছড়াছড়ি। গতকাল রাতে ইউরোপের সেরা ৫ লিগের প্রায় সবগুলো বড় দল খেলতে নামে। ইউরোপীয় ফুটবলের জমজমাট এ রাতে ঘটেছে নানা ঘটনা। এদিন বড় দলগুলো যেমন ছোট দলগুলোকে উড়িয়ে দিয়েছে তেমনই হয়েছে রেকর্ড। সিরি আয় রোমার বিপক্ষে জোড়া গোল করে রেকর্ডবুকে নতুন করে নাম লিখিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

স্প্যানিশ লা লিগায় নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভিয়ারিয়ালকে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে উড়ে যাওয়া বার্সেলোনা। অভিজ্ঞ খেলোয়াড় মেসি ও তরুণ খেলোয়াড় আনসু ফাতির ঝলকে দুর্দান্তভাবে নতুন মৌসুম শুরু করতে সমর্থ হয়েছে তারা।

ম্যাচটিতে ১৫ মিনিটের সময় জর্দি আলবার শট থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন আনসু ফাতি। সপ্তাহ খানে আগে বার্সার মূল দলে পাকাপোক্তভাবে নাম লেখানো আনসু ফাতি ৪ মিনিট বাদেই নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন। এরপর ৩৫ মিনিটের সময় পেনাল্টি শট থেকে দলের তৃতীয় ও নিজের প্রথম গোল করেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ভিয়ারিয়ালের মারিও গাসপার ওই সময় আনসু ফাতিকে ডি বক্সের ভেতর ফাউল করেন। ফলে পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ পায় বার্সা। আর এই সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি মেসি।

লা লিগায় এদিন বার্সার মতো নিজেদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নামে তৃতীয় সর্বোচ্চ শক্তিশালী দল অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। তারা নিজেদের প্রথম ম্যাচে গ্রানাডাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দেয়। ম্যাচটিতে অ্যাতলেটিকোর হয়ে ২ গোল করেন সদ্যই বার্সা থেকে বিদায় নেয়া লুইস সুয়ারেজ। ম্যাচটিতে অ্যাতলেটিকোর হয়ে আরো গোল করেন দিয়েগো কস্তা, অ্যাঞ্জেল করেরা, জোয়াও ফেলিক্স ও মার্কাস লরেন্তে। অন্যদিকে গ্রানাডার হয়ে গোল করেছেন জর্জ মলিনা ভিদাল। বার্সা ছাড়ার পর অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই নিজের অ্যাতলেটিকো ক্যারিয়ার রাঙালেন সুয়ারেজ।
ব্যর্থ নেইমার : এছাড়া গতকাল ফরাসি লিগ ওয়ানের চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর ২-০ গোলে হারিয়েছে রেঁসকে। ম্যাচটিতে পিএসজির হয়ে দুটো গোলই করেছেন মাউরো ইকার্দি। তিনি ম্যাচের ৯ মিনিটের সময় প্রথম গোলটি করেন। প্রথমার্ধে পিএসজি এই ১টি গোলের দেখাই পায়। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৬২ মিনিটের সময় জোড়া গোল পূর্ণ করেন তিনি। তবে এদিন পিএসজি জয় পেলেও নেইমারের পারফরমেন্স নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন পিএসজি কোচ টমাশ টুখেল। নেইমার গোল করার সহজ সুযোগ হাতছাড়া করায় কোচ তার ওপর নাখোশ হন।

অন্যদিকে জার্মান বুন্দেসলিগায় অপ্রত্যাশিত হারের মুখ দেখেছে বুন্দেসলিগার টানা ৮ বারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ। তারা পরশু রাতে হোফেনহামের বিপক্ষে ৪-১ গোলে হেরে যায়। আর এই হারের মাধ্যমে টানা ৩২ ম্যাচে অপরাজিত থাকার পর প্রথম হারের মুখ দেখেছে ইউরোপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ইউরোপিয়ান ফুটবলে এটি ছিল সবচেয়ে বড় চমক। যেখানে সবাই ধরে নিয়েছিল বায়ার্ন সহজেই জয় তুলে নেবে সেখানে তারা হেরে বসে। বায়ার্ন হোফেনহামের বিপক্ষে তাদের পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে মাঠে নামে। কিন্তু তাতেও হার এড়াতে পারেনি তারা। রোনালদোর জোড়া গোল : তবে গতকাল ইউরোপের বড় দলগুলো জয় তুলে নিতে পারলেও সিরি আয় প্রায় হারতে হারতে রোমার বিপক্ষে ২-২ গোলের ড্র করেছে চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। ম্যাচটিকে জুভেন্টাসকে মূলত বাঁচিয়ে দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তিনি পেনাল্টি থেকে ১টি গোল ও হেড থেকে দুর্দান্ত গোল করেন। অন্যদিকে রোমার হয়েও জোড়া গোল করেন জর্ডান ভেরেটাউট। এই দুটি গোল করেই রেকর্ড বুকে নাম লেখান রোনালদো। তিনি ইউরোপের সেরা ৫টি লিগের মধ্যে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ৪৫০টি গোল করার কীর্তি দেখান।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটের সময় শূন্যে প্রায় ভেসে থেকে হেড থেকে দুর্দান্ত গোল করেন ৩৫ বছর বয়সি রোনালদো। তিনি এই গোলটি করার আগে জুভেন্টাস ২-১ গোলে পিছিয়ে ছিল। তার এই গোলে শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলের সমতা পেয়ে নাপোলির সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে জুভেন্টাস। রোনালদো তার দ্বিতীয় গোলটি করেন মূলত অতিমানবতা দেখিয়ে।

রোনালদো ৪৫০টি গোলের মধ্যে তিনি ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ১৯৬টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৮৪টি গোল। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ২৯২টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৩১১টি গোল। আর জুভেন্টাসের হয়ে ৬৬টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৫৫টি গোল। তার চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী মেসি অবশ্য তার এই রেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন। মেসি বার্সার হয়ে লা লিগায় এখন পর্যন্ত ৪৪৫টি গোল করেছেন। ফলে তিনি রোনালদোর চেয়ে এখন মাত্র ৫ গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে আছেন। ফলে তিনি রোনালদোর এই রেকর্ডকে ছুঁয়ে ফেলবেন এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

এসএইচ



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে