ডিসেম্বরেই ফেডারেশন কাপ

0
24


ডিসেম্বরেই ফেডারেশন কাপ

করোনার কারণে গত মার্চে দেশে সব খেলা স্থগিত করা হয়েছিল। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফের খেলাধুলা আয়োজনের অনুমতি দিয়েছে সরকার। তাই ফুটবলের নতুন মৌসুম শুরু করতে মরিয়া হয়েছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। বৃহস্পতিবার বাফুফের প্রফেশনাল লিগ কমিটির সভা শেষে জানানো হয়েছে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ফেডারেশন কাপ দিয়ে মাঠে গড়াবে নতুন ফুটবল মৌসুম। তাই খেলোয়াড় রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে নভেম্বরে। আর বিদেশি কোটায় খানিকটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। গত মৌসুমে ছিল ৫ জন রেজিস্ট্রেশন এবং খেলতে পারতেন ৪ জন বিদেশি। এবার একটি ক্লাব ৪ জন বিদেশি রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবে, মাঠেও নামতে পারবে ৪ জন। এর আগে বেশির ভাগ ক্লাব বিদেশি ছাড়া নতুন মৌসুম দাবি করলেও সমালোচনার মুখে তারা সুর পাল্টিয়েছে।

এছাড়া গত মৌসুম পরিত্যক্ত হওয়ায় এবার খেলোয়াড়দের পুরনো ক্লাবেই থাকতে হবে। তবে ক্লাবের সঙ্গে সমঝোতায় কোনো খেলোয়াড় অন্য দলে যেতে পারবেন। এবার পরিত্যক্ত মৌসুমের দেনা-পাওনা নিয়ে গুঞ্জন চলছিল। অবশেষে খেলোয়াড়দের বকেয়ার পুরোটা দিতে রাজি হয়েছে ক্লাবগুলো। গত মৌসুমে ক্লাবের সঙ্গে খেলোয়াড়দের যে চুক্তি ছিল নতুন মৌসুমের পারিশ্রমিক হবে তার ২৫ শতাংশ। এমনকি স্থানীয় ফুটবলাররা পুরনো ক্লাবেই থাকবেন। তবে বিদেশির বেলায় এসব কোনো নিয়ম নেই। তাছাড়া বিদেশিদের রেজিস্ট্রেশনের সময়ও কিছুদিন বেশি দেয়া হবে। স্থানীয়দের রেজিস্ট্রেশনের জন্য ৩ সপ্তাহ সময় দেয়া হলে বিদেশিদের জন্য থাকবে ৪ সপ্তাহ। ফেডারেশন কাপ মাঠে গড়ানোর ১০ বা ১৫ দিন আগে খেলোয়াড় রেজিস্ট্রেশন শেষ হবে। অক্টোবরের শেষ বা নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে ট্রান্সফার উইনডো। চার বিদেশির মধ্যে এশিয়ার একজন বাধ্যতামূলক। কোনো ক্লাব এশিয়ান কোটায় রেজিস্ট্রেশন না করালে তাদের একজন বিদেশি কম নিয়ে খেলতে হবে।

এছাড়া এবার করোনার কারণে লিগের সময় কমানোর পাশাপাশি ভেন্যুও কমানো হয়েছে। ঢাকা এবং তার নিকবর্তী জেলায় ভেন্যু থাকবে। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম, ময়মনসিংহ ও কুমিল্লার সঙ্গে যোগ হতে পারে গোপালগঞ্জ।

এসএইচ



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে