ছাত্রলীগের পদ হারালেন শোভন-রাব্বানী ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক

0
114

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক : ছাত্রলীগের ইতিহাসে নতুন ধারার সূচনা হলো। চাঁদাবাজির দায়ে নিজ পদ থেকে অপসারিত হলেন ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। গতকাল আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই সঙ্গে এ দুই পদে জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও জ্যেষ্ঠ সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য যথাক্রমে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন।

এর আগে ৭ সেপ্টেম্বর গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভায় প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের ওপর নিজের ক্ষোভের কথা জানান। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ প্রমাণিত হয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়  ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে জল ঘোলা হয় অনেক।
৭ সেপ্টেম্বরের ওই বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী তাদের গণভবনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেন। সেদিন ছাত্রলীগের দুই নেতাও গণভবনে উপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগ নেতাদের পরামর্শে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ না করেই তারা গণভবন ত্যাগ করেন। পরদিন রোববার সন্ধ্যা ও সোমবার সকালেও তারা গণভবনে যান।
পরে শনিবার আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলনের সিদ্ধান্ত যেহেতু আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে হয়েছে তাই এখন থেকে ছাত্রলীগের অন্যান্য সিদ্ধান্তও আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায় থেকে আসবে। আর পুরো বিষয়টি দেখভাল করবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা নিজেই।
আওয়ামী লীগের কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, শোভন-রাব্বানীর কিছু কর্মকান্ডে প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ হলেও পুরো ৩০০ সদস্যের কমিটির সবার ওপর তিনি ক্ষুব্ধ নন। শোভন-রাব্বানীর দায় পুরো ছাত্রলীগের ওপর তিনি দিতে চান না। এ জন্য তিনি ভারপ্রাপ্তদের দায়িত্ব দিয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে