২০১৯ সালের সেরা আলোচিত ১০

0
53


https://www.newstangail.com/wp-content/uploads/2019/10/received_1024712454364059.jpeg

আজ বিকাল গড়িয়ে যখন ঘড়ির কাঁটা পৌঁছাবে ৫টা ২১ মিনিটে, তখন ইংরেজি ২০১৯ সালের শেষ সূর্য বিদায় নেবে। নতুন বছরে নতুন আলোয় মর্ত্যকে আলোকিত করতে প্রস্তুতি নেবে সূর্য। বাংলাদেশের জন্য বিদায়ি বছর রেখে যাচ্ছে আলোচিত অনেক ঘটনা, দুর্ঘটনা। তাতে বাছাই করা আলোচিত ১০ ঘটনার মধ্যে রয়েছে শেখ হাসিনা, রাফী হত্যা, রিফাত হত্যা, বুয়েটের আবরার হত্যা, পেঁয়াজ, ডেঙ্গু, ক্যাসিনো, সাকিব আল হাসান,  স্বর্ণজয়ী ও রাজাকারের তালিকা।

এক. শেখ হাসিনা : ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরে হওয়া নির্বাচনে জয়ী হয়ে চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন শেখ হাসিনা। ৩০০ আসনের মধ্যে ২৫৯টি আসন নিয়ে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ। ৩ জানুয়ারি নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নেন। সংসদ নেতা নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা। ৭ জানুয়ারি শপথ নেন মন্ত্রিসভা সদস্যরা। টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়া শেখ হাসিনা শুরু থেকেই পরিবর্তন পরিবর্ধনের মধ্য দিয়ে সরকারের কাজে গতি সঞ্চার করেন। বছর শেষে কাউন্সিলের মাধ্যমে টানা নবমবারের মতো আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পান। বছর জুড়ে তিনি দেশ-বিদেশে অসংখ্য মর্যাদা সম্পন্ন আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন। একই সঙ্গে বিশ্ব নেতাদের প্রশংসা অর্জন করেন। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিদেশে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। রোহিঙ্গা ইস্যুতে তার অবস্থান বিশ্বনেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

দুই. রাফী হত্যাকান্ড : ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফীকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা পুরো দেশকে নাড়া দিয়েছে। শিক্ষক নামের ঘাতকের পৈশাচিকতার শিকার নুসরাতের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে বিচারের দাবি তোলে দেশের মানুষ। হত্যাকান্ডের ঘটনাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এর বিচার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। কোর্ট দ্রুততার সঙ্গে বছরের মধ্যেই দায়ীদের মৃত্যুদন্ডের রায় আসে আদালত থেকে।

তিন. রিফাত হত্যা : নুসরাত হত্যাকান্ডের মতো আলোচিত ছিল রিফাত হত্যাকান্ড। বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে স্ত্রী মিন্নি ও শত শত মানুষের সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাতকে। কুপিয়ে হত্যার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশ জুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। খুনিদের বিচারের দাবি উঠে দেশ জুড়ে। দেশ-বিদেশে আলোচিত এ ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। এ ঘটনায় মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট জমা দেওয়া হয়েছে।

চার. আবরার হত্যাকান্ড : বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের নির্মম হত্যাকান্ড কাঁদিয়েছে পুরো দেশের মানুষকে। রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে একই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এ ঘটনার পর খুনিদের বিচারের দাবিতে আন্দোলনে নামে বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। টানা দুই মাস বন্ধ থাকে বুয়েটের কার্যক্রম। হত্যাকান্ডে জড়িত ১৯ জন ছাত্রকে বহিষ্কার করে বুয়েট। গত ১৩ নভেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।

পাঁচ. ক্যাসিনো : বছরের অন্যতম আলোচিত ঘটনা ছিল সরকারের দুর্নীতিবিরোধী অভিযান। অভিযানে একের পর এক গ্রেফতার হয় ক্যাসিনো ডন, তাদের সহযোগী ও টেন্ডারবাজরা। নানা সমালোচনার পর গ্রেফতার হয় যুবলীগ দক্ষিণের বহিষ্কৃত সাবেক সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী। পাশাপাশি একই সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভ‚ঁইয়া। এ অভিযানে অনেক রথী-মহারথী আটক হয়। একই সঙ্গে অনেককে তাদের পদ থেকে অপসারণ করা হয়। চাঁদা দাবির অভিযোগে প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অপসারণ করা হয়। ক্যাসিনো কান্ডে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিরুদ্ধে অভিযান চলে। একেবারে বছর শেষে শেখ মারুফকে দুর্নীতি দমন কমিশন তলবের নোটিস পাঠায়।

ছয়. সাকিব আল হাসান : ক্রিকেটে বাংলাদেশে সবচেয়ে আলোচিত ছিল অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য সাকিব আল হাসানের ওপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের নিষেধাজ্ঞা ক্রিকেটপ্রেমীদের আহত করে। বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার ওপর এ নিষেধাজ্ঞা ধাক্কা লাগে জাতীয় ক্রিকেট দলে। দুর্দান্ত অলরাউন্ড নৈপুণ্যে জুনে বিশ^কাপ মাতিয়েছিলেন। জুনে নৈপুণ্য দেখিয়ে অক্টোবরে চলে গেলেন নিন্দিত কাতারে।

সাত. পেঁয়াজ : পেঁয়াজ দৈনন্দিন জীবন থেকে রাষ্ট্রীয় জীবনে আলোচনায় সমালোচনায় উঠে আসে। কারণ দেশের ইতিহাসে পেঁয়াজের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে ৩০০ টাকায় গিয়ে দাঁড়ায়। এরপরও পেঁয়াজ নিয়ে তুলকালাম ঘটনা ঘটে যায়। এ পেঁয়াজ ছিনতাই হয়েছে। ট্রাকে করে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির লাইন নিয়ে মারামারি হয়েছে। পেঁয়াজ বিক্রির সময় পুলিশকে পাহারা দিতে হয়েছে। পেঁয়াজ কখনও বিমানে চড়েনি। এই পেঁয়াজ বিমানে আনতে হয়েছে। সরকারও বিব্রত ছিল পেঁয়াজ নিয়ে। কারসাজি হয়েছে এ পেঁয়াজ নিয়ে। ইতিহাস তৈরি করেছে পেঁয়াজ। যা কখনও এ দেশে হয়নি। পেঁয়াজ দেশের মানুষের কাছে অমূল্য রতন হয়ে গিয়েছিল। নব দম্পতিকে বিয়েতে উপহার হিসেবে দেওয়া হয়েছে পেঁয়াজ।

আট. ডেঙ্গু : বছর জুড়ে ডেঙ্গু ছিল আলোচনায়। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। যে কারণে তিনি ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা দিতে গিয়ে বেশ কিছুটা অস্বস্তির মধ্যে পড়েছিলেন। শেষমেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অর্থমন্ত্রীর অসমাপ্ত বক্তৃতা পাঠ করতে হয়। সারা বছরে ডেঙ্গুতে মারা যায় প্রায় দুইশ। এমন কোনো বাড়ির মানুষ নেই যেখানে সেই পরিবারের সদস্যরা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হননি। ডেঙ্গু নিয়ে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের চেষ্টা কোনো কাজে আসেনি। বিশেষ করে মশা মারার ওষুধ নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সমালোচনা হয়েছে।

নয়. এসএ গেমস : এসএ গেমসের ইতিহাসে বাংলাদেশ নিজেদের সেরা সাফল্য পেয়েছে। ডিসেম্বরে নেপালে অনুষ্ঠিত গেমসে ২৫টি ইভেন্টে অংশ নিয়ে ১৪২টি পদক জয় করে। এর মধ্যে ১৯টি ছিল স্বর্ণ। যার সিংহভাগ আসে আরচ্যারি থেকে। তাদের অসাধারণ নৈপুণ্য আরচ্যারির ১০টি ইভেন্টের সবগুলোতেই স্বর্ণ জিতে নেয় বাংলাদেশ। গড়ে নতুন ইতিহাস। নিজেদের রাঙিয়ে, দেশকে রাঙিয়ে মাথা উঁচু করেই ঘরে ফিরেছেন তারা।

দশ. রাজাকারের তালিকা : অনেক আগে থেকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলে আসছিলেন বিজয় দিবসের আগেই রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করা হবে। প্রকাশ করলেনও। কিন্তু প্রকাশ করার পরই শুরু হলো সমালোচনা। কারণ এ রাজাকারের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের নাম। পরে নিজে দুঃখ প্রকাশ করে এ তালিকা প্রত্যাহার করে নেন। এ তালিকা নিয়ে খোদ প্রধানমন্ত্রী নিজেও দুঃখ প্রকাশ করেন।



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে