আনসার আল ইসলামের ২ সদস্য গ্রেফতার

0
55


https://www.newstangail.com/wp-content/uploads/2020/01/Rab-.jpg

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: রাজধানীর গাবতলী ও টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থেকে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি দল মঙ্গলবার সকাল ৮টা হতে বিকেল ৩টা বিকেল পর্যন্ত পৃথক অভিযানে গাবতলী বাসস্ট্যান্ড ও টাঙ্গাইল হতে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতাররা হলেন- মো. তাভী খান (২১) ও সোহাগ হাওলাদার (২৫)। গ্রেফতারকালে তাদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি উগ্রবাদী বই ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র এএসপি (অপস) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে।

তিনি বলেন, গ্রেফতার তাভী খানের বাড়ি টাঙ্গাইলে। তিনি ডিপ্লোমা (সিভিল ইঞ্জিনিয়ার) কোর্স সম্পন্ন করেছেন। একপর্যায়ে আনসার আল ইসলামের শীর্ষ স্থানীয় নেতা ইতিপূর্বে গ্রেফতার ইলিয়াছ হাওলাদার ওরফে খাত্তাবের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। ইলিয়াছের কথায় উদ্বুদ্ধ হয়ে তারা প্রায় বিভিন্ন স্থানে জঙ্গি সংগঠনের কাজে দেখা-সাক্ষাৎ করতেন। ইলিয়াছ হাওলাদার সঙ্গে পরিচয়ের মাধ্যমে গত তিন বছর আগে আনসার আল ইসলামে যোগ দেন তাভী খান।

পরবর্তীতে অনলাইনে বিভিন্ন উগ্রবাদী আইডি থেকে জঙ্গি সংক্রান্ত পোস্ট ডাউনলোড করেন এবং বিভিন্ন জঙ্গির সঙ্গে তার পরিচয় হয়। জঙ্গি সংগঠনে বিভিন্নভাবে আর্থিক সহায়তা প্রদান করে আসছিলেন তাভী। তিনি অনলাইনে শীর্ষ স্থানীয় জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন এবং তাদের সঙ্গে সাক্ষাতের আয়োজন করতেন।

গ্রেফতার সোহাগ হাওলাদার জিজ্ঞাসাবাদে জানান, তিনি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানা এলাকায় একটি ওয়ার্কশপে কাজ করেন। তিনিও আনসার আল ইসলামের শীর্ষ স্থানীয় নেতা ইলিয়াছ হাওলাদারের মাধ্যমে উদ্বুদ্ধ হয়ে গত দুই বছর আগে যোগদান করে।অ্যাপস ব্যবহার করে অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের উগ্রবাদী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা আরও জানায়, তারা গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার বিপক্ষে। তাদের মতে, এই ব্যবস্থা ‘তাগুতি’ বা বাতিল। তারা গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থাকে অবৈধ হিসেবে আখ্যায়িত করে এই সরকার উৎখাতের লক্ষ্যে উগ্রবাদী কার্যক্রম পরিচালনার চেষ্টা চালিয়ে আসছে।

জঙ্গি তৎপরতা, প্রশিক্ষণ ও করণীয় সম্পর্কে তারা নিজেদের মধ্যে অনলাইনে যোগাযোগ করে। জঙ্গি সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের নির্দেশে সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধি, নতুন সদস্য ও চাঁদা সংগ্রহসহ উগ্রবাদী কার্যক্রম বাড়ানোর লক্ষ্যে গোপন বৈঠকের জন্য গত ১৬ নভেম্বর উত্তর-পশ্চিম থানাধীন সেক্টর-১৩ চৌরাস্তা এলাকার ভোজন বিলাস হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে মিলিত হওয়ার চেষ্টা করছিল। র‌্যাব-৪ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই তথ্য পেয়ে জানতে পেরে ওই সময় আনসার আল ইসলামের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করে নাশকতার পরিকল্পনা নস্যাৎ করে।

ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মঙ্গলবার গ্রেফতার তাভী খান ও সোহাগ হাওলাদার। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা কৌশলে পালিয়ে যান। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে