করোনায় আক্রান্ত মাওলানা সাদ!

0
53


করোনায় আক্রান্ত মাওলানা সাদ!

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: সরকারি নিধেধাজ্ঞা অমান্য করে ভারত সরকারের রোষানলে পড়া তাবলিগের বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত মাওলানা সাদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এমন খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

মাওলানা সাদ করোনাভাইরাসে ভারত জুড়ে লকডাউন না মেনে জমায়েত করেছেন। সেখান থেকে করোনা সংক্রমণ ঘটে ইতোমধ্যে ৭ জন মারা গেছেন।

এ ব্যাপারে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, মনে করা হচ্ছে অন্তত ৪০০ জন করোনা আক্রান্তের যোগসূত্র রয়েছে এই অনুষ্ঠানের সঙ্গে। বিষয়টি নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি হওয়ার পর থেকে নিজামুদ্দিন মারকাজের প্রধান ৫৬ বছর বয়সী মাওলানা সাদ কান্ধলভির খোঁজ নেই। গত ২৮ মার্চ থেকে তাকে খুঁজছে পুলিশ। সূত্রের বরাতে এনডিটিভি বলছে, মাওলানা সাদও করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

তাবলীগ জামাতের একাংশের শীর্ষ নেতা মাওলানা সাদ কান্দলভি ও নিজামুদ্দিন মারকাজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তাকে ধরতে ইতোমধ্যে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

জানা গেছে, মাওলানা সাদ করোনাভাইরাসে ভারত জুড়ে লকডাউন অমান্য করে দিল্লির নিজামুদ্দিন মার্কাজে তাবলিগ জামাতের বড় জমায়েত ঘটিয়েছেন। সেই জমায়েতে থাকা ইতোমধ্যে ৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বাকিরা ভারতে বিভিন্ন প্রদেশে ফিরে যাওয়ায় অসংখ্য মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন বলে আশঙ্কা দিল্লি পুলিশের।

দিল্লি পুলিশ আগেই নোটিশ দিয়েছিল সাদকে। ভারতের প্রভাবশালী পত্রিকা আনন্দবাজার জানিয়েছে, ওই জামাত থেকে ফিরে দিল্লিতে ২৪ জন, তেলেঙ্গানায় ৬ জন, আন্দামানে ১০ জন, কাশ্মীরে একজন ও তামিলনাড়ুতে ৫০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। ওই জামাতে ৮২৪ জন বিদেশি ছিলেন। ইতোমধ্যে পুলিশ সেই তথ্য সংগ্রহ করেছে।

প্রসঙ্গত, ওই মার্কাজ থেকে ২ হাজার ৩৬১ জনকে সরিয়ে নেয়া হয়। তাদের মধ্যে ৬১৭ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘিরে রাখা হয়েছে পুরো এলাকা। এখান থেকে বিভিন্ন রাজ্যে যেসব মানুষজন গেছেন, সেসব রাজ্যে কড়া নজর রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গে সাদের জমায়েত থেকে যারা ফিরেছেন, তাদের প্রত্যেককে খোঁজা হচ্ছে। সবাইকে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে