‘ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলে তিস্তার ন্যায্য হিস্যা পাচ্ছি না কেন’

0
34

‘আওয়ামী লীগ দাবি করে তাদের সঙ্গে নাকি ভারতের সবচেয়ে ভালো সু-সম্পর্ক রয়েছে। যদি তাই হয়, তাহলে তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা পাচ্ছি না কেন?’

সোমবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও মির্জা রুহুল আমিন মিলনায়তনে আয়োজিত জেলা জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ভারতে গেলেন তখন দেশের মানুষ আশা করেছিলেন হয়তো এবার পানির ন্যায্য হিস্যা মিলবে। কিন্তু হলো তার উল্টোটি। ভারতকেই ফেনী নদীর পানি দিলেন তিনি। আওয়ামী লীগ যে দেশ পরিচালনায় ব্যর্থ তা আবারও প্রমাণ করলেন।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কৃষিতে যে বিপ্লব ঘটেছে এর সবকিছু প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের অবদান। দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। কিন্তু ফসলের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না কৃষক। টানা ১১ বছর রাষ্ট্রক্ষমতায় আওয়ামী লীগ। এই ১১ বছরে কৃষকের ১১ হাল হয়েছে। ফসলের দাম না পাওয়া কৃষক আজ ঋণগ্রস্ত। অথচ এই ফ্যাসিবাদ সরকার দাবি করছে দেশ নাকি উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘১৯৭৪ সালে দেশে ভয়াবহ দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়। লংকর খানা খোলা হয়েছিল। তখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিলেন। সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান কৃষি বিপ্লবের মাধ্যমে দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেন। দু:খ হয় কৃষক আজ তার উৎপাদিত ফসলের দাম পায় না । আওয়ামী লীগ চিৎকার বলে দেশ নাকি উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে।’

সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব হাসান জাফির তুহিন, সদস্য আফতাব উদ্দিন মন্ডল, এস কে সাদী, সুলতানুল ফেরদৌস নম্র চৌধুরী, জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে