ইভিএম থেকে সরে আসুন

0
149


ইভিএম থেকে সরে আসুন

ঢাকা সিটি করপোরশন নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সিদ্ধান্ত থেকে নির্বাচন কমিশনকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটির বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

তিনি বলেন, আমরা ইভিএম এর ব্যবহার নিয়ে আশঙ্কায় রয়েছি। আমরা প্রযুক্তি বিরোধী নই, কিন্তু ভোট দেয়ার ক্ষেত্রে এ প্রযুক্তি ব্যবহার নিয়ে আমাদের আশঙ্কা ও আপত্তি রয়েছে। কারণ, নির্বাচন কমিশন নিজেরাই স্বীকার করেছেন ইভিএম ব্যবহার করার মতো নিজস্ব লোকবল তাদের নেই, এ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে তাদের লোক ধার করতে হচ্ছে। তাছাড়া, ইভিএম ব্যবহার করতে দেশের মানুষ এখনো প্রস্তুত নয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) নির্বাচনী গণসংযোগকালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নির্বাচনে ইসির অংশীজন হচ্ছে রাজনৈতিক দল ও ভোটাররা। দেশের বেশিভাগ রাজনৈতিক দল ও ভোটাররা ইভিএম ব্যবহারের বিপক্ষে, কিন্তু ইসি এখনো ইভিএম ব্যবহার না করার বিষয়ে আমাদের কিছুই জানায়নি।

ডিএনসিসির এ মেয়র প্রার্থী বলেন, ইভিএম এর সফটওয়্যার ও এর ব্যবহারের নানা বিষয় নিয়ে ইসির কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে চেয়েছি আমরা কিন্তু এখনো তারা আমাদের এ বিষয়ে কিছুই জানায়নি। নির্বাচন কমিশনকে বলবো, দেশের বেশিরভাগ রাজনৈতিক দল ভোটারদের ইচ্ছার কথা বিবেচনায় এনে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসুন।

সকালে বসুন্ধরা সিটির সামনে থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। সকাল ১১টার দিকে তিনি প্রচারণা শুরু করেন। এসময় হাজার হাজার নেতাকর্মী ও স্থানীয় মানুষের সমাগম হয়। এসময় মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল সাধারণ মানুষের সঙ্গে কুশবিনিময় করেন এবং নগর উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে ধানের শীর্ষ প্রতীকে ভোট চান।

বিএনপির গণজোয়ার দেখে সরকারি দলের প্রার্থীরা ভয় পেয়ে উল্টো বিএনপির প্রার্থীদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে এমন অভিযোগ করে তাবিথ আউয়াল বলেন, আমাদের ভয় দেখানোর চেষ্টা না করে ভোটারদের কাছে যান, ভোট চান। এসময় কাউন্সিলর প্রার্থী ও দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর হামলা বন্ধের আহ্বান জানান তাবিথ আউয়াল।

তাবিথ আউয়াল বলে, নির্বাচনী পরিবেশ সকালে এক রকম আর বিকেলে আরেক রূপ ধারন করে। সকালে প্রচারণা চালাতে পারলেও বিকেলে বিএনপি সমার্থিত কাউন্সিল প্রার্থীসহ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করা হয়। গতকাল (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা চালিয়ে ১২ জনকে আহত করা হেেছ। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ধানের শীষের গণজোয়ার দেখে ভীত হয়ে হামলা ও হুমকি দিচ্ছে। যেন ভোটারেরা ৩০ তারিখ কেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রয়োগ করতে না পারে।

ধানের শীষের প্রার্থী বলনে, ঢাকা সিটির ৩০ লাখ ভোটার ইভিএম এর রপ্ত করতে পারে নি। তাছাড়া এটি একটি ত্রুটিপূর্ণ পদ্ধতি। ইভিএম দিয়ে ভোট চুরি করা যায়। ইভিএম পদ্ধতি বাতিল করে ব্যালটেই ভোট দেওয়ার দাবি করছি। তাবিথ আউয়াল বলেন, ধানের শীষের পক্ষে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। জনগণ ভোট দিতে পারলে বিজয় সুনিশ্চিত।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, নিপুন রায় চৌধুরী, ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তরের সহ সভাপতি বজলুল বাসিদ আঞ্জু, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা সুলতানা আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, সিনিয়র সহ সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সহ সভাপতি গোলাম সরোয়ার, কমিশনার প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

ডিসি



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে