এনামুল-রূপনের অবৈধ টাকার গোডাউন

0
52


এনামুল-রূপনের অবৈধ টাকার গোডাউন


পুরান ঢাকায় সন্ধান মিলছে অবৈধ টাকার গোডাউনের। সেখানে মিলছে টাকা আর টাকা সাথে বৈদেশিক মুদ্রাও, এফডিআরসহ বিভিন্ন ব্যাংকের গচ্ছিত টাকার চেক বইও আছে সেখানে। ঐ অবৈধ গোডাউনের মালিক গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল ও রূপন। তারা দুই ভাই সিন্দুক ভর্তি টাকা বুঝায় করে রেখেছেন। অবশিষ্ট টাকা বস্তা ও কয়েকটি ব্যাগভর্তি করে লোকিয়ে রাখে ক্যাসিনো মামলার আসামি এনামুল ও রূপন। নারিন্দার লালমোহন সাহা স্ট্রিটের ছয় তলার বাড়িটির নিচতলার প্রায় পুরোটায় জুড়েই এই টাকার গোডাউন হিসেবে ব্যবহৃত হত।

অবৈধ টাকার গোডাউন

সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে বাড়িটি ঘেরাও করে র‌্যাব। পরে নিচ তলার একটি ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে দুটি রুমে থাকা এসব সিন্দুক ও টাকার ব্যাগের সন্ধান পায় র‌্যাব। তারা জানান, এনামুল ও রূপনের পনোরোটি বাড়ির সন্ধান নিতে গিয়েই ধরা পড়ে এসব অবৈধ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার। রাতে অভিযান চালিয়ে এসব জব্দ করা হয়। র‌্যাব জানায়, এনামুল-রূপন ক্যাসিনো থেকে অবৈধভাবে এই সম্পদ অর্জন করেছে। তাদের সম্পদের আরো খোঁজ নিতে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে।

টাকা আর টাকা সাথে বৈদেশিক মুদ্রাও

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম বলেন, আমরা চেষ্টা করছি গুণতে, তবে ১৫ থেকে ২০ কোটি টাকার মতো হবে, গণনার পর সঠিকটা জানানো যাবে সবাইকে। তবে ৫ কোটি টাকার মতো এফডিআর পেয়েছি, যা দুই ভাইয়ের নামে করা আছে এবং অন্যান্য আলামত যেমন ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে ব্যবহৃত যে সমস্ত ক্যাসিনোর চিজ রয়েছে সেটা পেয়েছি। সেখানে লেখা রয়েছে এ ক্লাবের নাম। আমরা এ থেকে প্রতীয়মান হচ্ছি যে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব থেকে ক্যাসিনোর মাধ্যমে যে অবৈধভাবে তারা টাকাটা উপার্জন করেছে এটা সেই টাকা।

সিন্দুক ভর্তি টাকা

এ ঘটনায় স্থানীয় রাজনৈতিক কর্মীরা জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখছে র‌্যাব। র‌্যাব-৩ সিইও লে. কর্নেল রফিকুল হাসান বলেন, আমরা অবশ্যই বের করতে পারবো এর সঙ্গে কেউ জড়িত আছে কিনা। তাদের এ বাড়ি ছাড়াও আরো যে বাড়ি আছে সেগুলোর ব্যাপারেও খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে