পুলিশ ও প্রিসাইডিং অফিসাররা ছিলেন অসহায়

0
83


পুলিশ ও প্রিসাইডিং অফিসাররা ছিলেন অসহায়


ভোটের দিন শাসক শ্রেণির অন্যায় নির্দেশের কাছে মাঠ পর্যায়ে কর্মরত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রিসাইডিং অফিসরা অসহায় ছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকা দক্ষিণে বিএনপি মনোনীত ইশরাক হোসেন। নির্বাচন পরিবর্তী যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন। বুধবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১ টায় গুলশান ইমানুয়েলস হলে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

ইশরাক বলেন, ‘আমি নগরবাসীকে কথা দিয়েছিলেন, তাদের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেব। বাসযোগ্য একটা শহর উপহার দেব। কিন্তু শাসক শ্রেণির ভোট চুরি, ভোট কারচুপি, ভয়-ভিতি প্রদর্শনের মাধ্যমে ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্র থেকে দূরে রাখাসহ নানা কারণে আমি আমার কথা রাখতে ব্যর্থ হয়েছি। তবে আগামীতে আবার নগরবাসীর ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য মাঠে আসব।

তিনি বলেন, ‘আমি দেখেছি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং প্রিসাইডিং অফিসারদের অনেকেই চেয়েছে সুষ্ঠু নির্বাচন হোক। কিন্ত তারা শাসক শ্রেণির অন্যায় নির্দেশের কাছে সম্পূর্ণ অসহায় ছিল। তারা নিরুপয় হয়ে সরকারের অন্যায় নির্দেশ মেনে চলতে বাধ্য হয়েছে। সংবাদ সম্মেলন মঞ্চে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ উপস্থিত আছেন। সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করছেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, বরকত উল্যাহ বুলু, চেয়ারপারসনে র উপদেষ্টা আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, এলডিপির (একাংশ) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে ভোটের দিনকার নানা ধরণের অনিয়ম, কারচুপি, পুলিশি হয়রানীর অভিযোগের পক্ষে সংগৃহিত তত্ত্ব-উপাত্ত্ব তুলে ধরছেন ইশরাক হোসেন। পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে সাংবাদিকদের সামনে সব কিছু তুলে ধরছেন তিনি।

এসএইচ



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে