মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন আরিয়া

0
34


মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন আরিয়া

আলোহা বাংলাদেশের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ত্রয়োদশ জাতীয় পর্যায়ের অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় জুনিয়র লেভেলে গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হয় আরিয়া আনান। এবারের এই প্রতিযোগিতায় সারাদেশ থেকে ৬০০টির বেশি বিদ্যালয়সহ মোট ৩ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থী ও ভারত থেকে ১০০ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছিল। সেখানে পাঁচ মিনিটের মধ্যে ৭০টি অঙ্কের সব ক’টির সঠিক উত্তর দিয়ে গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হয় সে। এরই ধারাবাহিকতায় এই বছর ১৯ জুলাই আন্তর্জাতিক অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে স্পেন যাচ্ছে আরিয়া।
এর আগে ২০১৯ সালের ১ মার্চ জাতীয় পর্যায়ের দ্বাদশ অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতাতেও জুনিয়র লেভেল-৪ থেকে অংশ নিয়ে গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল সে। এরপর একই বছর ২০ জুলাই চায়নাতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জুনিয়র লেভেল-৫-এ ফের গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন সে। তারপর এ বছর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া একই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জুনিয়র লেভেল-৬-এ আবারো বিজয়ী হয় আরিয়া আনান। বর্তমানে সে মোহাম্মাদপুরের গ্রীনউড স্কুলে তৃতীয় শ্রেণিতে অধ্যায়নরত। আরিয়ার পছন্দের রঙ লাল ও নীল। তার সঙ্গে কথা বললে সে জানায়, বড় হয়ে অঙ্কের শিক্ষক হতে চায় সে।
বাংলাদেশে এ আয়োজনের অনুষ্ঠান সহযোগী হিসেবে ছিল এ্যালপেনলিবে, হাইজিন পার্টনার হোয়াইট প্লাস কিডস্, হেলথ কেয়ার পার্টনার ই.ডাব্লিউ. ভিলা মেডিকা ও ডিএমএফআর মলিকুল্যার ল্যাব এন্ড ডায়াগনষ্টিক। ইভেন্ট এ্যান্ড ষ্ট্র্যাটিজিক পার্টনার হিসেবে ছিল ভিমরুল কমিউনিকেশন লিমিটেড।
উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের দিন প্রধান অতিথির বক্তব্যে মি. পেট্রু বোগদান স্ট্যান বলেন, ‘আমরা চাই পুরো পৃথিবীজুড়ে শিক্ষার্থীদের বুদ্ধিমত্তার সৃষ্টিশীল বিকাশ ঘটুক। সে লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। প্রতি বছর বাংলাদেশের এত ছেলে-মেয়েদের অংশগ্রহণ আমাকে বিস্মিত করে, অনুপ্রাণিত করে। আমরা চাই এ মেধাবী মুখগুলো ভবিষ্যতে দেশের উন্নতিতে অংশগ্রহণ করুক।’ উল্লেখ্য, ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে আলোহা বাংলাদেশ।

ডিসি



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে