সাহেদ নিজেই অপরাধীদের বিচার চাইতেন (ভিডিও)

0
20


সাহেদ নিজেই অপরাধীদের বিচার চাইতেন (ভিডিও)

গত কয়েক দিন ধরেই আলোচনায় রিজেন্ট হাসপাতাল ও তার মালিক সাহেদ। করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফলাফল জালিয়াতির ঘটনার জেরে থলের বিড়াল যেন বের হয়ে আসছে এক এক করে। অবৈধ হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা, সাহেদের চরিত্রের খোলস, সাহেদ তৈরি হয়েছে কাদের পৃষ্ঠপোষকতায় এসব নিয়ে প্রশ্ন সব দিকে।

সাহেদের আলোচনাকে বেশি জমিয়েছে তার তোলা সেলফি। ক্ষমতাসীন দলের গুরুত্বপূর্ণ পদের নেতা, মন্ত্রী, এমপি, দেশের বড় বড় কর্তাব্যক্তি, সাংবাদিক, প্রশাসন সবার সাথেই ছবি ও সেলফি। ছবি রয়েছে দেশের বড় বড় সাংবাদিকদের সাথে। প্রধানন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছে এমন ছবিও ভাইরাল হয়েছে সাহেদের। উদ্দেশ্যমূলকভাবে ছবিগুলো তোলা হলেও তাদের সাথে সাহেদের সম্পর্ক কী, সবার সাথেই তার যোগাযোগ রয়েছে এসব বিষয় নিয়েই যেন সমালোচনা বেশি।

রিজেন্ট হাসপাতাল ইসুতে সব কুকর্ম ফাঁস হওয়ার আগে সাহেদ ছিল একজন নিয়মিত টকশো আলোচক। দেশের জনপ্রিয় সব মেইন স্ট্রিমের টেলিভিশনগুলোর জনপ্রিয় টকশোগুলোতে সাহেদ অংশ নিয়ে জাতির উদ্দেশে নানা বক্তব্য দিয়েছেন। শুনিয়েছেন নানা নীতিকথা। তখন হয়তো বুঝার উপায়ই ছিল না যে, যে ব্যক্তি কথা বলছে তিনি নিছক একজন প্রতারক ছাড়া কিছু নয়। ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে সাহেদের টকশোতে দেয়া বিভিন্ন বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ। এসব বক্তব্যে সাহেদের মুখ থেকে উচ্চারিত হচ্ছে বিভন্ন নীতিকথা, যেসব কথার সাথে তার কর্মকাণ্ড সম্পূর্ণ বিপরীত।

একটি টেলিভিশনের টকশোতে দেয়া সাহেদের বক্তব্যে দেখা যাচ্ছে, তিনি ক্যাসিনো ইসুতে বক্তব্য দিচ্ছিলেন। তিনি ওই বক্তব্যে বলেন, ‘আপনি যতোই প্রধানন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ হন না কেন, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না’। ক্যাসিনো ইসুতে যুবলীগের নেতৃবৃন্দের গ্রেফতার ও সেসময়ে তালিকাভুক্ত করে অনেক নেতাকেই বিচারের আওতায় আনেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময়ের বক্তব্য ছিল এটি। সাহেদের এমন বক্তব্য তখন একজন ভালো মানুষ হিসেবে হলেও, বর্তমানে সাহেদ দেশের সবার কাছে পরিচিত একজন বড় প্রতারক হিসেবে। সাহেদের সে বক্তব্য যদি বাস্তবায়িত হয়, তবে বড় বিপদেই পড়তে যাচ্ছে সাহেদ। নিজের ব্যক্তব্যের সাথেই মিল রেখেই বিচারের আাওতায় আসতে হবে তাকে।

এমআই



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে