‘বিএনপি ঘর থেকেই বের হয় না’

0
24


‘বিএনপি ঘর থেকেই বের হয় না’

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেছেন, করোনাকালে একমাত্র আওয়ামী লীগই জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে। সে কারণে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীর, মন্ত্রীরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। আবার করোনায় অনেক নেতৃবৃন্দকে আমরা হারিয়েছি। আর বিএনপি ঘর থেকে বের হয় না। টেলিভিশনে কথা বলছেন। জনগণের সাথে নেই।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জনতার প্রত্যাশার আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ. ম রেজাউল করিম। আওয়ামী লীগের প্রয়াত দুই প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম ও অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের স্মরণে এই সভার আয়োজন করা হয়।

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেন, আমাদের দলের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ বলেছিলেন ‘আওয়ামী লীগ হচ্ছে একটি অনুভূতির নাম’ সেই অনুভূতির প্রাণ পুরুষ ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম ও অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। তারা দুইজন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। দলের দুঃসময়ে যেমন হাল ধরেছেন, সরকারেও সফল ছিলেন তারা। মহান আল্লাহ’র যেন তাদের যেন বেহেশত নসিব করেন।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী শামীম আরো বলেন, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ও মোহাম্মদ নাসিম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক ছিলেন। তারা কখনো লাইন চ্যুত হয়নি। পুলিশ দ্বারা বার বার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। স্বৈরারচার বিরোধী আন্দোলন, বিএনপি জামায়াতের আন্দোলনে পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। আন্দোলন সংগ্রামের অগ্রভাবে থাকতেন তারা দুজন।

এসময় করোনাভাইরাসের আক্রান্ত আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক এসএ মান্নান কচির সুস্থ্যতা কামনা করেন শামীম।

জনতার প্রত্যাশার সভাপতি এমএ করিমের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী, নুরুল আমিন রুহুল এমপি, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিলীপ রায়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রনি, কুয়েত আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সাদেক হোসেন, জনতার প্রত্যাশার মহাসচিব লায়ন মশিউর আহমেদ, রোকন উদ্দিন পাঠান, হুমায়ুন কবির মিজি প্রমুখ।

পিআর



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে