টাঙ্গাইল পার্ক বাজারের উন্নয়ন হয়নি দীর্ঘ ৪২ বছরেও

0
18

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইল শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত পার্ক বাজারটিতে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি দীর্ঘ ৪২ বছরেও। একসময় অস্থায়ী ভিত্তিতে গড়ে ওঠা বাজারটি ৩০ বছর আগে স্থায়ী বাজার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিল। কিন্তু এর উন্নয়নে কারও নজর নেই। ফলে শহরের সর্ববৃহৎ বাজারটিতে দুর্ভোগের সীমা নেই ক্রেতা-বিক্রেতাদের। এ বাজারের ব্যবসায়ীরা বাজারের উন্নয়নের জন্য দাবি জানিয়েছেন অনেকবার। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি।

টাঙ্গাইল পৌরসভা সূত্র জানায়, শহরের ছয়আনি বাজারের উন্নয়ন কাজের জন্য বিগত ১৯৭৭ সালে উদ্যোগ নেয় পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। তখন বাজারের ব্যবসায়ীদের ভাসানী হলের পাশে টাঙ্গাইল পার্কের তিন একর জায়গায় অস্থায়ীভাবে বসানো হয়। তারপর ছয়আনি বাজারের উন্নয়নকাজ শেষ হলে সেখানে পুনরায় বাজার চালু হয়। কিন্তু পার্কে অস্থায়ীভাবে আসা ব্যবসায়ীরা আর সরে যাননি। পরে বাজারটি পার্ক বাজার হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। পৌরসভা কর্তৃপক্ষ পার্ক বাজারের ইজারা দেয়া শুরু করে। বিগত ১৯৮৯ সালে বাজারটি স্থায়ী বাজার হিসেবে মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পায়। বর্তমানে পার্ক বাজারে প্রায় সাতশ’ স্থায়ী দোকান এবং তিন শতাধিক অস্থায়ী দোকান রয়েছে। এতো বড় বাজারে আজও কোনো নালা নির্মাণ করা হয়নি। পানি নিস্কাশনেরও কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে সবসময় কাঁদায় ভরে থাকে পুরো বাজার। সামান্য বৃষ্টি হলেই কাঁদার কারণে বাজারের অনেক এলাকায় ঢোকা যায় না।

সরেজমিনে দেখা যায়, কাঁদার মধ্যেই কেনাকাটা চলছে। বাজারের বিভিন্ন অংশে পড়ে আছে ময়লা, আবর্জনা। বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, বাজার ইজারা দিয়ে পৌরসভা আয় করলেও এটির উন্নয়নে তারা তৎপর নয়। মাংস ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিদিন এখানে ৪০-৫০টি গরু ও ছাগল জবাই করে মাংস বিক্রি হয়। কিন্তু পশু জবাইয়ের জন্য এখানে কোনো জবাইখানা নেই। ফলে যত্রতত্র পশু জবাই করতে বাধ্য হচ্ছেন তারা। শহরের সাবালিয়া এলাকার রহমান শেখ বলেন, পার্ক বাজারটি এতো অগোছালো যে এটাকে আর বাজার মনে হয় না। মনে হয় একটি আবর্জনার ভাগার। বিশ্বাস বেতকা এলাকার গৃহবধূ বিলকিস বেগম টিনিউজকে বলেন, এটি জেলা শহরের বড় বাজার। এখানে সব পাওয়া যায়। তাই তিনি এ বাজারে আসেন। কিন্তু কাঁদায় দুর্ভোগের সীমা থাকে না।

পার্ক বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবদুল বারেক জানান, বাজারটি উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন সময়ে তারা পৌরসভা ও প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু আজও কোনো উন্নয়ন হয়নি। পার্ক বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জোয়াহের আলী জানান, বাজারটির ভেতরে কোনো বাতি নেই। তাই সন্ধ্যার পর ভুতুড়ে পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন বলেন, বাজারটি উন্নয়নে পৌরসভার পরিকল্পনা রয়েছে। কিছু জটিলতা থাকলেও এগুলো কাটিয়ে বাজারের উন্নয়ন করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে