মিসাইলের শব্দে হেসে ওঠা সিরিয়ার সেই শিশুটি এখন পরিবারসহ তুরস্কে

0
56

সিরিয়ার ইদলিবে শিয়া সমর্থিত আসাদ বাহিনীর হামলায় বিধ্বস্ত হচ্ছে সুন্নী মুসলিমদের ভিটা-বাড়ি। আর এদিকে ঘরে বসে শান্ত বাবা নিজ মেয়েকে শেখাচ্ছেন মিসাইল ও বোমার বিকট আওয়াজের সময়ও কীভাবে হাসতে হয়।

সম্প্রতি এমন একটি ভিডিও ইতিমধ্যে ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়। যাতে দেখা যায় সিরীয় আব্দুল্লাহ যুদ্ধবিমানের আওয়াজ শুনে তার ৪ বছরের মেয়ে সালওয়াকে বলছেন, “এটা কি বিমানের আওয়াজ নাকি মিসাইলের?”।
সালওয়া: ” মিসাইল”।
আবদুল্লাহ: “মিসাইলের আওয়াজ শুনলে আমরা একসাথে হাসবো”।

পরবর্তীতে দেখা যায় পাশে একটি মিসাইলের বিকট আওয়াজ হলো। এবং সেই আওয়াজ শুনেও বাবা-মেয়ে উভয়েই হাসলেন।
পরে আবদুল্লাহ বললেন, বিষয়টি খুব মজার না?
সালওয়া: “খুব মজার”।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে শিরোনাম হওয়ার পর সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তুর্কি সরকার। এরপর সিরিয়া থেকে অভিভাবকের সঙ্গে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে তুরস্কে যায় সালওয়া।

সালওয়ার বাবা আবদুল্লাহ বলেছিলেন, তীব্র শব্দে আতঙ্কিত বা ভয় না পেয়ে হেসে ওঠার খেলাটি তাঁর মেয়েকে শান্ত, চনমনে ও খুশি থাকতে সাহায্য করেছে। সম্ভবত এই কারণেই তুরস্ক সরকারও তাঁদের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়েছে।

তুরস্কের আনাদলু এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, সালওয়া ও তার পরিবার গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সীমান্ত পাড়ি দিয়ে তুরস্কে পৌঁছেছে। তাদের তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলের রেয়হালনি শরণার্থীশিবিরে নেওয়া হয়েছে।

গার্ডিয়ান-এর প্রতিবেদক বেথান ম্যাককেরান গত মঙ্গলবার সালওয়া ও তাঁর বাবার ছবিসহ টুইট করে লিখেছেন, ‘প্রথমবারের মতো, সে (সালওয়া) হয়তো স্বাভাবিক বিষয়গুলোতে হাসতে পারবে।’

সালওয়ার বাবা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তুরস্কের গণমাধ্যমে বলেছেন, তুরস্কে পৌঁছাতে পেরে তিনি আনন্দিত। এখন সালওয়া স্কুলে যাওয়ার সুযোগ পাবে। এ সময় তিনি সিরিয়া যুদ্ধ শেষ হলে পুনরায় স্বদেশে ফেরার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, সিরিয়ায় শিয়া সমর্থিত আসাদ বাহিনীর সুন্নী মুসলিমদের উপর অনবরত হামলা চলছেই। গত ডিসেম্বর থেকে প্রায় ৯ লাখ মুসলিম নিজের বাসস্থান হারিয়েছেন। রিপোর্টে বলা হয়, ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া সিরিয়ায় শুধু এই এলাকাটিই অক্ষত রয়েছে।

এ নিয়ে পূর্বের প্রতিবেদনটি পড়ুন

সিরিয়ায় মিসাইলের আওয়াজেও মেয়েকে হাঁসতে শেখান বাবা (ভিডিও)



একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে